মাএ পনোর দিনের এক শিশুকন্যা গভীর রাতে বাড়ি থেকে আচমায় নিখোঁজ হয়ে গেলে

কাঁথি, পূর্ব মেদিনীপুর, সংবাদদাতা :  মাএ পনোর দিনের এক শিশুকন্যা গভীর রাতে বাড়ি থেকে আচমায় নিখোঁজ হয়ে গেলে। ঘটনাটি ঘটছে কাঁথি ২ ব্লকের সফিয়াবাদ গ্রামে। এই ঘটনাকে কেন্দ্রে করে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। জানাগেছে বৃহস্পতিবার গভীর কাঁথি থানার সিভিক ভ্যালেনটিয়া শুভজিৎ প্যাড়য়া ও স্ত্রী সীমা প্যাড়য়া দুই মেয়ে নিয়ে বাড়িতে দরজা বন্ধ করে ঘুমাতে চলে যায়। গভীর রাতেই স্ত্রীর আর্তচিৎকারে ঘুম ভেঙ্গে যায় সিভিক ভয়ালেটিয়ার শুভজিতের। স্ত্রী জানায় পনোর দিনের মেয়ে খুজে পাওয়ার যাচ্ছে না।

তারপরেই শুরু শুভজিৎ, পরিবারের লোকেরা ও এলাকায়বাসীরা খোঁজাখুজি শুরু করে। কিন্তু পনোর দিনের শিশুকন্যাটি কোন হৃদিশ পায়নি। শুক্রবার এলাকায়বাসীরা শুভজিতের বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। খবর পেয়েই ঘটনার স্থলে ছুটে কাঁথি থানার পুলিশ। কিন্তু তাতেই ঔই পনের দিনের শিশুকন্যার কোন হৃদিশ পাওয়া যায়নি। কিভাবে উদ্ধাও হল শিশুকন্যাটি তা নিয়ে তৈরি হয়েছে ধন্ধ।

শিশুকন্যাটি হৃদিশ পেতে প্রাথমিক পর্ষারের চারজনকে আটক করে জিজ্ঞসাবাদ শুরু করেছে পুলিশ। আটক ব্যাক্তি হল শুভজিৎ প্যাড়য়া, সীমা প্যাড়য়া, জেৎস্না সামন্ত ও মিনালকলি প্যাড়য়া। গ্রামবাসীদের অভিযোগ পর পর দুটি মেয়ে জন্মান পর কারনে প্রথম থেকেই মুখ ভার ছিল শিশুকন্যা মা এবং শুভজিতের শ্বাশুড়ি।সুতরাং তারাই এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত বলে প্রাথমিক পর্ষারের অনুমান গ্রামবাসীদের। এই ঘটনার পর পুলিশ বিভিন্ন সূএ মারফত ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। কাঁথি থানার পুলিশের কথায় এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

Please follow and like us:

Related posts