সর্বভারতীয় নবচেতনার আনুষ্ঠানিক আত্নপ্রকাশ অনুষ্ঠানে ড. মীরাতুন নাহার

miratun nahar in nabachetana

সর্বভারতীয় নবচেতনার আনুষ্ঠানিক আত্নপ্রকাশ অনুষ্ঠানে রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেনকে নিয়ে মূল্যবান বক্তব্য রাখেন ড. মীরাতুন নাহার “সর্বভারতীয় নবচেতনা”র আনুষ্ঠানিক আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানে বহু বিশিষ্ট মানুষ উপস্থিত হয়েছিলেন। এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে নারী কল্যাণের অগ্রদূত রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেনকে স্মরণ করা হয়। ৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ রবিবার দুপুরে আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয় পার্ক সার্কাস ক্যামপাসের অডিটোরিয়ামে সর্বভারতীয় নবচেতনার আনুষ্ঠানিক আত্নপ্রকাশ অনুষ্ঠানে রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেনকে নিয়ে মূল্যবান বক্তব্য রাখেন বাংলার রোকেয়া গবেষক ও বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ড. মীরাতুন নাহার। সর্বভারতীয় নবচেতনার কাজ ও উদ্দেশ্য নিয়ে বক্তব্য রাখেন সর্বভারতীয় নবচেতনার সভাপতি ড. হুমায়ুন কবীর, মোঃ নিজাম শামিম, আইপিএস,…

উদার আকাশ বিশেষ সংখ্যা প্রকাশ অনুষ্ঠানে ডাঃ নাবিলা খানকে সম্মাননা

উদার আকাশ বিশেষ সংখ্যা প্রকাশ অনুষ্ঠানে সম্মাননা প্রদান করা হয় সমাজকর্মী ডাঃ নাবিলা খানকে সম্মাননা তুলে দিলেন প্রাক্তন আইপিএস অফিসার মোঃ নিজাম শামীম সংবাদদাতা, কলকাতা: উদার আকাশ বিশেষ সংখ্যা প্রকাশ অনুষ্ঠানে সম্মাননা প্রদান করা হয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ুন কবীর, কবি সুবোধ সরকার, সমাজকর্মী ডাঃ নাবিলা খান, প্রাক্তন আইপিএস অফিসার মোঃ নিজাম শামীম সহ ২৬ জন বিশিষ্টজনদের হাতে সম্মাননা তুলে দিলেন সর্বভারতীয় নবচেতনার সাধারণ সম্পাদক ও উদার আকাশ পত্রিকার সম্পাদক ফারুক আহমেদ। ভারত ও বিশ্বে এই প্রথম উদার আকাশ পত্রিকার সম্পাদক ফারুক আহমেদ ঐতিহাসিক প্রয়াস নিয়ে প্রকাশ করলেন “ঈদ উৎসব ও মহিষাসুর…

নষ্ট নীড় কবিতা সকলনের মোড়ক উন্মোচন

সত্যব্রত দাস, দিঘা: “সৃজন সারথী” মননশীল সাহিত্য পরিবারের প্রাক শারদীয়া উপলক্ষে কিছু নবীন কবি সাহিত্যিকের উদ্যোগে দিঘাতে “নষ্ট নীড়” কবিতা সংকলন এর শুভ মোড়ক উন্মোচন করা হয়। মোড়ক উন্মোচন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি তথা এই এলাকার বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ রবীন্দ্র নাথ মিশ্র। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাহিত্যিক দেবাশীষ পণ্ডা। “নষ্ট নীড়” কবিতা সংকলনের সম্পাদক ডাঃ অসিত বরণ কর প্রাক শারদীয়ার শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও সম্পাদকীয় প্রতিবেদন পাঠ করেন, সেই সাথে নব প্রতিভার উন্মেষের লক্ষে আলোকপাত করেন। এই কবিতা সংকলনে অনিমা মাইতি, বিদিশা দাস, বিন্দু ভূষণ দে, বিশ্বনাথ ধাড়া, দেবজিৎ দত্ত, ইতিকা…

রাজ্য সরকারের বিশেষ সন্মাননার সম্ভাবনা শিশিরকুমার বাগের লেখা “ছাত্রছাত্রীদের বিদ্যাসাগর”

রাজকুমার আচার্য, মহিষাদল (পূর্ব মেদিনীপুর), 29 সেপ্টেম্বর: রাজ্য সরকারের বিশেষ সন্মাননা পাওয়ার সম্ভাবনা তৈরী হয়েছে শিক্ষক ও সাহিত্যিক শিশিরকুমার বাগের লেখা গদ্য সংকলন “ছাত্রছাত্রীদের বিদ্যাসাগর”৷ শনিবার বইটির আনুষ্ঠানিক প্রকাশ করে এমনই সম্ভাবনার কথা জানালেন পূর্ব মেদিনীপুর জেলার প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের চেয়ারম্যান মানসকুমার দাস৷ তিনি বলেন, বইটি পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী পড়েছেন৷ বইটি তাঁর অভিনব মনে হয়েছে৷ সামনেই বিদ্যাসাগরের জন্ম দ্বিশতবর্ষ উদযাপন শুরু হবে। শুভেন্দুবাবু বইটির জন্য বিশেষ সন্মাননার ব্যাপারে রাজ্য সরকারের কাছে সুপারিশ করবেন৷ বইটি শিশিরবাবু ছাত্রছাত্রীদের উপযোগী করে বিদ্যাসাগরের জীবনের নানা দিক তুলে ধরেছেন তাঁর সরল প্রাঞ্জল গদ্যে৷ বইটিতে…

কথাসাহিত্যিক শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের ১৪৩ তম জন্মদিবস পালিত হলো তার জন্মভিটেতে

চুঁচুড়া:- কথাসাহিত্যিক শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের ১৪৩ তম জন্মদিবস পালন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হলো তাঁর জন্মভিটে হুগলির দেবানন্দপুরে। অনুষ্ঠানের আয়োজক পশ্চিমবঙ্গ বাংলা অ্যাকাডেমি। সহযোগিতায় হুগলি জেলা পরিষদ ও জেলা তথ্য সংস্কৃতি দপ্তর। সকালে ব্যান্ডেল স্টেশন সংলগ্ন শরৎচন্দ্র ইনস্টিউট থেকে এলাকার বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা পদযাত্রা সহকারে শরৎচন্দ্র স্মৃতি মন্দিরে উপস্থিত হয়। এরপর সারাদিনব্যাপী শরৎ সাহিত্য নিয়ে আলোচনা সহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। সকালে উপস্থিত ছিলেন চুঁচুড়ার বিধায়ক অসিত মজুমদার, হুগলি জেলা তথ্য ও সংস্কৃতি আধিকারিক মন্দাক্রান্তা মহলানবিশ সহ অন্যান্যরা। এরপর সারাদিনে উপস্থিত হওয়ার কথা তিন মন্ত্রী তপন দাশগুপ্ত, অসীমা পাত্র ও ইন্দ্রনীল সেনের।…

বিদ্যাসাগরের দ্বিশতবার্ষিকী উদযাপনে কমিটি মুখ্যমন্ত্রীর

পন্ডিত ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের দ্বিশততম জন্মবার্ষিকী উদযাপনের জন্য ২৭ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী শ্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এই কমিটির শীর্ষে থাকবেন। অন্যান্য সদস্যরা হলেন: পরিবহন, সেচ, তথ্যপ্রযুক্তি, নারী ও শিশু কল্যাণ দপ্তরের মন্ত্রীরা, মুখ্যসচিব, বিভিন্ন দপ্তরের সচিব, পর্ষদের সভাপতি, ঝাড়গ্রাম রামকৃষ্ণ মিশনের প্রিন্সিপাল, সাংবাদিক, শিক্ষাবিদ সহ অনেকে। বাংলায় শিক্ষার প্রসারে পন্ডিত ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের ভূমিকা ছিল অপিরিসীম। বিধবা বিবাহ চালু করাতেও ওনার অবদান অনস্বীকার্য। ওনার লেখা বই বর্ণপরিচয়, কথামালা, বত্রিশ সিংহাসন, বেতাল পঞ্চবিংশতি ইত্যাদি শিশুদের অত্যন্ত প্রিয়। সংস্কৃত পাঠের জন্য উনি রচনা করেছিলেন উপক্রমণিকা। Please follow and…