নারী স্বাস্থ্য সচেতনতা বাড়াতে উদ্যোগী ক্লাব সংগঠকরা

হলদিয়া : উত্তর কালিনগর রবীন্দ্র স্মৃতি সংঘ এর বাৎসরিক অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী দিন থেকে শেষ দিন পর্যন্ত ছিল নানান সামাজিক কর্মসূচী। সংগঠনের রীতি মেনে বট বৃক্ষে জল দান করে অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন অবসর প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আশুতোষ রায়, উপস্থিত ছিলেন চৈতন্যপুর অঞ্চল প্রধান দূর্গা রানী পন্ডিত মাইতি মহাশয়া, সুতাহাটা পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যা রীনা বৈদ্য সহ বিশিষ্ট জন। হলদিয়া মহকুমা হাসপাতালে সহযোগিতায় রক্তদান শিশির সংগঠিত করা হয় প্রথম দিন। এই রক্তদান শিবিরের গ্রামের মহিলাদের উৎসাহ চোখে পড়ার মত। রক্তদাতাদের হাতে তুলে দেওয়া হয় চারাগাছ, রক্তদাতাদের মধ্যহ্ন ভোজ করানো হয় শাল পাতার থালায়…

গাছ লাগিয়ে যত্ন নিলে তবেই পাবে শিক্ষা সামগ্রী

নিজস্ব সংবাদদাতা : পূর্ব মেদিনীপুর: পরিবেশ প্রেমী স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা “চলো পাল্টাই” এই নিয়মেই বই খাতা সহ শিক্ষা সামগ্রী প্রদান করল পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম সহ হাওড়া জেলার মোট ১৩৫ জন ছাত্র ছাত্রীদের। পরিবেশ কে বাঁচাতে পারে একমাত্র গাছ তাই সেই গাছ লাগানোর প্রবনতা ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে বাড়িয়ে তুলতে এই অভিনব প্রচেষ্টা। দুঃস্থ মেধাবী হাওয়ার পাশাপাশি তাকে বৃক্ষ প্রেমী হতে হবে তবেই তাকে শিক্ষা সামগ্রী দেওয়া হবে। গত ১২ জানুয়ারি স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিন থেকে এই কর্মসূচী শুরু হয় এবং ২৩ জানুয়ারি নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বসুর জন্মদিন পর্যন্ত বিভিন্ন এলাকাতে গিয়ে…

ঝাড়গ্রামের মানুষকে কম্বল বিতরণ করতে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সঙ্গে রাষ্ট্রপতি পুরস্কার প্রাপ্ত শিক্ষিকা লতিকা মাইতি

নিজস্ব সংবাদদাতা : ঝাড়গ্রাম : গতকাল বৃহস্পতিবার “উষ্ণতার ছোঁয়া” নামে ২০ তম *পাশে থাকার অঙ্গীকার* নিয়ে চলো পাল্টাই পরিবার ঝাড়গ্রাম এর কাঁটাবাড়ি যায় । কাঁটাবাড়ির *৪০টি* পরিবারের হাতে কম্বল তুলে দেওয়া হয় সংস্থার পক্ষ থেকে । এই প্রচন্ড শীতে ওরা যাতে একটু উষ্ণতার ছোঁয়া পায় , একটু সুস্থভাবে কাটাতে পারে শীতের বাকি দিনগুলি সেই মনের আশা নিয়ে ওদের পাশে দাঁড়ায় । সেইসাথে ঝাড়গ্রাম স্টেশন চত্ত্বরে আরো ৫ জন অসহায় মানুষের হাতে তুলে দেওয়া হয় কম্বল । তাদের এই ক্ষুদ্র কিন্তু মহৎ উদ্দেশ্যমূলক কাজে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি পুরস্কার প্রাপ্ত…

বড়ির সাতকাহন

বড়ি কি? বড়ি বাঙালির সম্পূর্ণ নিজস্ব একটি খাদ্যদ্রব্য। বড়ি অত্যন্ত ঘরোয়া একটি খাদ্য উপকরণ। অন্যদিকে বড়ি প্রস্তুতকরণ একটি লোকশিল্পও বটে, যার উৎপত্তিস্থল ও সময়কাল সঠিকভাবে জানা দুরূহ। সংস্কৃত বটিকা শব্দ (যার অর্থ বিশেষ পদার্থ হতে প্রস্তুত ক্ষুদ্রাকার গোলাকৃতির কোন বস্তু) থেকে বড়া ও পরে পরিবর্তিত হয়ে বড়ি উদ্ভূত হয়েছে। বাংলার সমস্তপ্রান্তে এটি একটি সমানভাবে সমাদৃত। শুধু যে শাক, ডাঁটা, পোস্ত, শুক্তো ইত্যাদি নিরামিষ পদ রান্নাতেই বড়ি লোকপ্রিয় এমন নয়; মাছ, চিংড়ি ইত্যাদির বহু পদ বড়ি সহযোগে অত্যন্ত স্বাদু। প্রধানতঃ শীতের মরসুমে বড়ি দেওয়ার অধিক প্রচলন। মাষকলাইয়ের ডাল বড়ি তৈরিতে সর্বাধিক…

মানব সভ্যতা কে গ্রাস করছে থার্মকল ও প্লাস্টিক ক্যারি ব্যাগ

Raise voice against use of plastic

মানব সভ্যতা কে গ্রাস করছে থার্মকল ও প্লাস্টিক ক্যারি ব্যাগ। মধুসূদন পড়ুয়া, হলদিয়া : শীত আসার সাথে সাথে আমরা মাতছি চড়ূইভাতি বা পিকনিকে। আনন্দ উৎসবে মাতোয়ারা হয়ে নিজেরা DJ বক্স বাজিয়ে নিজেদের সঙ্গে সঙ্গে ক্ষতি করছি পাশের মানুষের। কোথায় হচ্ছে বেশি দূষণ: পূর্বমেদিনীপুর জেলার বিভিন্ন প্রান্তে যেমন হলদি নদীর তীর, বালুঘাটা সান সেট ভিউ পয়েন্ট, গেঁওখালি ত্রিবেণি সংগম, রূপনারায়ন নদের তীর সহ তমলুকে নদী পাড়ের বিভিন্ন জায়গায়, কোলাঘাট এ নদীর পাড় সহ বিভিন্ন পিকনিক স্পট এ দেখা মিলছ কেবল থার্মকল এর তৈরী সামগ্রী, সারি সারি প্লাস্টিক ক্যারি ব্যাগ ও Use and…

সেলিব্রিটি হয়ে মাকে ভুলে গেলেন ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি

পশ্চিম মেদিনীপুর,  সেখ ওয়ারেশ:  খড়গপুর স্টেশনের একজন সাধারণ টিটি থেকে ভারতীয় দলের অধিনায়ক হয়ে ওঠেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। খড়গোপুর শহরে আলভা ময়দান ক্রিকেট প্র্যাকটিস করতেন’। তিনি সকলের কাছে ভারতীয় জনপ্রিয় দলের বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। কিন্তু তার বৃদ্ধা মা কলাবতী দেবী, আজও ছেলের বাড়ি ফেরার অপেক্ষায় দু চোখে তাকিয়ে আছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার খড়্গপুরের রেলের কোয়ার্টার বাড়িতে। কলাবতী দেবী বলেন “ধনী যখন খড়গপুরে থাকতেন, তখন  তাকে রান্না করে খেতে দিতেন আর তার  এঠো বাসন ধুয়ে দিতেন। কিন্তু যুগে কি পরিবর্তন তার কাছে আসেনা তার ছেলে। এই কষ্ট বুকে…

উষ্ণতার ছোঁয়া দিল সেচ্ছাসেবী সংস্থা “চলো পাল্টাই”

ঝাড়গ্রাম জেলার প্রত্যন্ত গ্রাম গোপালপুর ও তার পাশাপাশি গ্রাম গুলি যেখানে লোধা সম্প্রদায়ের প্রায় আঠারোশ থেকে দুই হাজার মানুষ বসবাস করে। ঝাড়গ্রাম এর গিধনী স্টেশন থেকে কিছু দূরেই এই মানুষদের গ্রাম। সেই গ্রামের মানুষদের পাশে থাকার অঙ্গীকার নিয়ে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার চলো পাল্টাই পরিবারের সদস্যরা পৌঁছে গেল শীত শুরুর আগেই। পুরাতন শীতের পোশাক এর সঙ্গে পুরোনো পোশাক সব মিলিয়ে তিন হাজারের বেশি পোশাক নিয়ে তারা হাজির ছিল ওই দিন । সেই সঙ্গে মহিষাদল গার্লস কলেজ MSW এর ছাত্র ছাত্রীরাও যোগ দিয়েছিলো হাতে কলমে কাজ করার জন্য। আগামী দিনে মেডিকেল ক্যাম্প…

দেওর ও বৌদির একসাথে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার। এলাকায় চাঞ্চল্য

bhabi and devar suicide

দেওর ও বৌদির একসাথে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার। এলাকায় চাঞ্চল্য । ঘটনাস্থলে বনগাঁ থানার পুলিশ। পরিবার ও পুলিশ সুত্রে জানা যায় বনগাঁ থানার কুন্দিপুরের স্বপ্না সাঁতরার বিয়ে হয় পাঁচ বছর আগে গাঁড়াপোতায় অনুপ বিশ্বাসের সাথে। তাদের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। স্বামী পেশাগত কারনে ভিন রাজ্যে থাকেন। স্বামী বাইরে থাকার দরুন মামা শ্বশুর দীলিপ বিশ্বাসের ছেলে বিজন বিশ্বাসের সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে পরে স্বপ্না বলে জানাযায়৷ মঙ্গল বার সকালে পরিবারের লোকজন একটি শাড়ি দিয়ে স্বপ্না ও বিজনের ঝুলন্ত দেহ দেখতে পায়। ঘটনাস্থলে বনগাঁ থানার পুলিশ এসে দুজনের দেহ ও উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে।…

জনসংযোগ ও ক্রীড়া প্রসারে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পুলিশের উদ্যোগ

পূর্ব মেদিনীপুরঃ  রাজ্য সরকারের প্রচেষ্টায় ,জেলা পুলিশের উদ্যোগে জন সাধারণ ও পুলিশ সুসম্পর্ক স্থাপনের লক্ষে সৈকত কাপের আয়োজন করা হয়েছে । প্রদীপ প্রজ্জলিত করে সোমবার এই খেলার উদ্বোধন করেন জেলা পুলিশ সুপার ভি সোলেমন নেশাকুমার । মূলত জন সংযোগ ও ক্রীড়া প্রসারই লক্ষ । এই আয়োজন কে চার ভাগে ভাগ করা হয়েছে । ফুটবল, ক্রিকেট,ম্যারাথন, সাঁতার এই খেলা গুলি রাখা হয়েছে বাছাইয়ের তালিকায় ।ফুটবলে সারা জেলা জুড়ে প্রতিটি থানা এলাকায় হবে। জেলার মোট ৬২৫ টি দল অংশ গ্রহণ করবে । ক্রিকেটে জেলার সমস্ত পৌর সভার ওয়ার্ড ভিত্তিক খেলা হবে। ম্যারাথন…

জন্মদিনে সতীশ চন্দ্র সামন্তের স্মৃতি বিজড়িত স্কুল সংস্কারের দাবি

তুহিন শুভ্র আগুয়ান, পূর্ব মেদিনীপুরঃ স্বাধীনতা আন্দোলন মানে ইতিহাসের প্রথম পাতায় উঠে আসে তৎকালীন অবিভক্ত মেদিনীপুর জেলার সংগ্রামীদের কথা।যার মধ্যে অন্যতম এক সংগ্রামী হলেন তাম্রলিপ্ত জাতীয় সরকারের কর্ণধার সর্বাধিনায়ক সতীশচন্দ্র সামন্ত।আজ তাঁর ১১৯তম জন্মজয়ন্তী।তাঁর জন্মজয়ন্তীকে প্রতিবছর তাঁর জন্মভিটে মহিষাদলের গোপালপুরে ঘটা করে পালন করা হয়।তবে জন্মদিন ঘটা করে পালন করা হলেও তাঁর স্মৃতিকে আজ ভুলতে বসেছে তাঁরই জন্মস্থানের মানুষজনেরা।১৯১০ সালে হিজলি টাইডাল ক্যানেলের পাড়ে গড়ে ওঠা মহিষাদল রাজ ইংলিশ স্কুলে পড়াশোনা শুরু করেছিলেন সর্বাধিনায়ক সতীশচন্দ্র সামন্ত। তবে বর্তমান ঝাঁ-চকচকে যুগের দৌলতে এই মহিষাদল রাজ ইংলিশ স্কুল আজ জরাজীর্ণ দশায় ঠায় দাঁড়িয়ে রয়েছে।এ…