বিজেপির ১১৪ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করলো পুলিশ

দক্ষিন দিনাজপুরঃ দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা প্রশাসনিক ভবন ঘেরাও ও অবস্থান-বিক্ষোভের জন্য প্রশাসনিক অনুমতি নেওয়া হয়নি। তাই বিজেপির জেলা সভাপতি শুভেন্দু সরকার, সাধারণ সম্পাদক বাপি সরকার সহ ১১৪ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল বালুরঘাট পুলিশ।

৬ ডিসেম্বর কোচবিহারের সিতাইয়ে দিলীপ ঘোষের উপর হামলার প্রতিবাদে সারা রাজ্যের পাশাপাশি বালুরঘাটে বিজেপির পক্ষ থেকে অবস্থান-বিক্ষোভ কর্মসূচি নেওয়া হয়। সেইমতো ৭ ডিসেম্বর মুখ্যমন্ত্রীর কুশপুতুল নিয়ে জেলা কার্যালয় থেকে বিজেপির প্রতিবাদ মিছিলটি বের হয়। জেলা প্রশাসনিক ভবনের সামনে আসতেই বাধা দেন পুলিশ কর্মীরা। ঘটনায় ধস্তাধস্তি হয় পুলিশ ও বিজেপি কর্মীদের মধ্যে। এরপরই বিজেপর কর্মীরা জেলা প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান-বিক্ষোভে বসে। প্রায় ঘণ্টাখানেক ধরে চলে অবস্থান। এরপরই এই কর্মসূচির জন্য পুলিশ-প্রশাসনের কাছ থেকে কোনওরকম অনুমতি নেওয়া হয়নি বলে জেলা সভাপতি শুভেন্দু সরকার সহ ১১৪ জন বিজেপির কর্মী-সমর্থকের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে বালুরঘাট থানার পুলিশ। পুলিশের দায়ের করা এফআইআর কপিটি আজ হাতে পান জেলা সভাপতি শুভেন্দু সরকার।

এই বিষয়ে শুভেন্দুবাবু বলেন, বিজেপি রাজ্য সভাপতির উপর হামলার বিরুদ্ধে ৭ ডিসেম্বর বালুরঘাট মিউজ়িয়ামের সামনে অবস্থান কর্মসূচি নেওয়ার জন্য জেলা পুলিশ-প্রশাসনের কাছে অনুমতি চাওয়া হয়। তবে সেই অনুমতি দেওয়া হয়নি। তাই তাঁরা সেদিন শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ মিছিল বের করেন। জেলা প্রশাসনিক ভবনের সামনে আসতেই পুলিশ বাধা দেয়। পরে তাঁরা সেখানেই অবস্থান-বিক্ষোভে বসেন। এরপরই জানতে পারেন, আগে কোনও অনুমতি না নেওয়ায় তাঁদের ১১৪ জন নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে এফআইর দায়ের হয়েছে। আরও মজার বিষয়, এফআইএর এ এমন অনেকের নাম আছে যাঁরা সেদিনের অবস্থান-বিক্ষোভের সময় ঘটনাস্থানেই ছিলেন না। তৃণমূলই এই নামের লিস্ট পুলিশকে দিয়েছে বলে তাঁর অভিযোগ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দেবাশিস নন্দী বলেন, বিনা অনুমতিতে অবস্থান-বিক্ষোভ করা হচ্ছিল। মাইক বাজানোর অনুমতিও নেওয়া ছিল না। তাই পুলিশের পক্ষ থেকে ১১৪ জনের বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Please follow and like us:

Related posts