জনসন পাউডার থেকে ছড়াল ক্যানসারের আতঙ্ক।

johnson baby powder causes cancer

সব শিশুদের বাবা-মায়ের এক নম্বর পছন্দ জনসন পাউডার থেকে সাবান। আর এই জনসনের টেলকম পাউডার থেকে ছড়াল ক্যানসারের আতঙ্ক।

সরকারের একটি সূত্র থেকে জানা গিয়েছে যে , মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বিষয়টি নিয়ে প্রথম প্রশ্ন উঠেছে। তারপরেই নড়েচড়ে বসেছে এদেশের ড্রাগ রেগুলটর কর্তৃপক্ষ।তারা বুধবার ই টেলকম পাউডারের নমুনা সংগ্রহ করেছে।
ওই পাউডার তৈরির সামগ্রীর নমুনাও নেওয়া হয়েছে।

১০০ জনের একটি দল এর জন্য গঠন করা হয়েছে।ওই দলে থাকছেন ড্রাগ ইনস্পেক্টররা। তাঁরা অভিযানে নামছেন দেশজুড়ে বুধবার থেকে। তারা খতিয়ে দেখবেন ওই পাউডার -এর তৈরির পদ্ধতি ও। তাঁরা যাবেন পাইকারি ব্যাবসায়ী ও ডিস্ট্রিবিউটরদেরও কাছেও ।

পরীক্ষা করে দেখা হবে সব ধরনের পাউডারের নমুনা।

আরও পড়ুন: তৈলাক্ত খাবার হৃদরোগের জন্য সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ : দেবি শেঠি !!

এই বিষয়টি সামনে আসার পর স্বাস্থ্য মন্ত্রকে মঙ্গলবার একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক হয়। বুধবার সকাল থেকেই এ নিয়ে পদক্ষেপ করা হবে ওই বৈঠকেই ঠিক হয় ।

প্রসঙ্গত, এর আগে July মাসে প্রথম এই বিতর্ক সামনে আসে। তখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিসৌরির একটি আদালত Johnson And Johnson সংস্থা কে জরিমানা করে।

২২ জন মহিলাকে ২২ Billion US Dollar ক্ষতিপূরণ দিতে বলে। ওই মহিলারা জনসনের Product Use -এর জেরে জরায়ুর Cencer -এ আক্রান্ত হন বলে অভিযোগ।

যদি ও এই সংস্থার তরফে গোটা বিষয়টি অস্বীকার করা হয়েছিল। কিন্তু ফের সংবাদসংস্থা রয়টার্সের তদন্তে ফের বিষয়টি উঠে আসে।
এর জেরে গত শুক্রবার Johnson শেয়ারের দামে পতন হয়। এই প্রথমবার Johnson -নের শেয়ারের দাম পড়ল গত ১৫ বছরে।

এ মাসে র গোড়ায় কানাডা থেকেও পাউডারের Use নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছিল। তারা জানিয়েছিল, পাউডার Use থেকে হতে পারে Cencer ও ফুসফুসে -এর সমস্যা।

যথেষ্ট জনপ্রিয় বাজারে এই জনসনের বেবি পাউডার। ১৩ শতাংশ পাউডার বিক্রি হয় অন্যগুলির তুলনায়। ফলে জনপ্রিয় সংস্থা সম্বন্ধে এই রকম মারাত্মক প্রশ্ন ওঠায় স্বাভাবিকভাবেই আতঙ্ক ছড়িয়েছে।

 

আরও পড়ুন:বাজার কাঁপাতে চলে এল VIVO -এর New পরবর্তী Smarphone Nex 2

Please follow and like us:

Related posts