গাছ লাগিয়ে যত্ন নিলে তবেই পাবে শিক্ষা সামগ্রী

নিজস্ব সংবাদদাতা : পূর্ব মেদিনীপুর: পরিবেশ প্রেমী স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা “চলো পাল্টাই” এই নিয়মেই বই খাতা সহ শিক্ষা সামগ্রী প্রদান করল পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম সহ হাওড়া জেলার মোট ১৩৫ জন ছাত্র ছাত্রীদের। পরিবেশ কে বাঁচাতে পারে একমাত্র গাছ তাই সেই গাছ লাগানোর প্রবনতা ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে বাড়িয়ে তুলতে এই অভিনব প্রচেষ্টা। দুঃস্থ মেধাবী হাওয়ার পাশাপাশি তাকে বৃক্ষ প্রেমী হতে হবে তবেই তাকে শিক্ষা সামগ্রী দেওয়া হবে। গত ১২ জানুয়ারি স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিন থেকে এই কর্মসূচী শুরু হয় এবং ২৩ জানুয়ারি নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বসুর জন্মদিন পর্যন্ত বিভিন্ন এলাকাতে গিয়ে ছাত্র ছাত্রীদের হাতে তাদের প্রাপ্য সামগ্রী ও চারাগাছ তুলে দেয় সংগঠনের সদস্যরা।

সংগঠনের তরফে মতিলাল দাস বলেন – পড়াশোনার পাশাপাশি সামাজিক ও পরিবেশ সম্বন্ধে দায়িত্ববান করার লক্ষে আমাদের এই প্রচেষ্টা। ইতি মধ্যে একটি পর্যবেক্ষক প্রতিনিধি দল তৈরি করা হয়েছে ছাত্র ছাত্রীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে গাছ গুলি র খোঁজ খবর নেওয়ার জন্য। সংগঠনের সম্পাদক মধুসূদন পড়ুয়া জানান, ছাত্র ছাত্রীরা হল আগামী দিনের ভবিষ্যৎ তাই ভবিষ্যৎ প্রজন্ম কে নতুন করে পরিবেশ সম্পর্কে সচেতন করতে এই উদ্যোগ। সেই সঙ্গে ২৪ সে জানুয়ারি থেকে শুরু হবে আর এক প্রচার অভিযান থার্মকল ও প্লাস্টিক এর বিরুদ্ধে । বিভিন্ন এলাকার স্কুল কলেজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ ক্লাব গুলিতে সংস্থার পক্ষ থেকে আবেদন করা হবে সরস্বতী পুজো বা যেকোনো অনুষ্ঠানে থার্মকল এর প্লেট, বাটি, প্লাস্টিক এর গ্লাস বন্ধ করে শাল পাতার থালা, মাটির বা কাগজের গ্লাস ব্যবহার করার জন্যে। এই ক্ষেত্রে সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন পুজো কমিটি, স্কুল কর্তৃপক্ষ সহ সাধারণ মানুষ, কারন বাজারে মিলছে না পর্যাপ্ত পরিমাণে শাল পাতার থালা। সংগঠকরা জানিয়েছেন কোনো স্কুল বা প্রতিষ্ঠান যদি শাল পাতা না পায় তারা স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা চলো_পাল্টাই এর সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন তারা পৌঁছে দেবে শাল পাতার থালা। এই উদ্যোগ কে সাধুবাদ জানিয়েছেন জেলার মানুষ।

Please follow and like us:

Related posts