নন্দীগ্রাম এ জমা টাকা না পেয়ে পোস্ট অফিসে বিক্ষোভ গ্রাহকদের

নন্দীগ্রাম এ জমা টাকা না পেয়ে পোস্ট অফিসে বিক্ষোভ গ্রাহকদের

জমা দেওয়া টাকার ম্যাচুরিটি হয়ে গেছে প্রায় তিন বছর.তবু মাসের পর মাস অফিসে চক্কর লাগালেও নিজেদের জমা করা টাকা পাচ্ছেন না গ্রাহকেরা.এর প্রতিবাদে মংগলবার
পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রামের মনোহরপুর গ্রামের সাব পোস্ট অফিসের দরজায় তালা লাগিয়ে পোস্ট মাস্টার দেবদুলাল ধাড়়াকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখান শতাধিক গ্রাহক। এর জেরে উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়.আন্দোলনকারীরা হুমকী দিয়েছেন এর পরেও পরিস্থিতির বদল না হলে তাঁরা আরো বড় আন্দোলনে নামবেন নিজেদের জমা টাকা ফেরতের দাবীতে.
জানা গেছে নন্দীগ্রামের সাব পোস্ট অফিসের পোস্ট মাস্টার সুধাংশু শেখর ধাড়া গ্রাহকদের প্রায় লক্ষাধিক টাকা জমা না করে আত্মসাৎ করে.গ্রাহকদের থেকে অভিযোগ পাওয়ার পরে সংশ্লিষ্ট দফতরের থেকে তদন্তের পর অভিযোগের সত্যতা পাওয়ার পরে অভিযুক্ত পোস্ট মাস্টার সুধাংশু শেখর সাউকে সাসপেন্ড করা হয়.তার যায়গায় কাজ চালানোর জন্যে নিয়োগ করা হয় দেবদুলাল ধাড়াকে.গ্রাহকদের দাবী এর পরে পোস্ট অফিস থেকে আশ্বাস দেওয়া হয় নির্দিষ্ট মেয়াদ অবধি টাকা জমা করলে নিয়ম অনুযায়ী সুদ সমেত সমস্ত টাকা গ্রাহকদের সময় মতো ফেরৎ দেওয়া হবে.বিক্ষোভকারী গ্রাহকদের মধ্যে অন্যতম পূর্ণিমা জানা বলেন সেই আশ্বাস পাওয়ার পরে তাঁরা উপার্জিত টাকা এখানে জমা করেন.অভিযোগ করেছেন এখন দফতর থেকে তাদের দেওয়া আশ্বাস রাখা হচ্ছেনা.তাঁর আরো অভিযোগ তিনি সহ প্রায় শতাধিক গ্রাহক নানা বাহানায় টাকা না দিয়ে ঘোরানো হচ্ছে.পুর্ণিমা দেবী জানিয়েছেন বর্তমানে তাঁর পরিবার ভীষণ কষ্টে আছে. তার বৃদ্ধা শাশুড়ির চিকিৎসার জন্য টাকার প্রয়োজন. অথচ নিজের জমা টাকা না পেয়ে তাঁকে হন্যে হয়ে ঘুরতে হচ্ছে.বলেন তাঁর মত অন্যদেরও সমস্যা আছে.তাই আজকে তারা বাধ্য হয়ে পোস্টমাস্টার কে ঘেরাও করেছেন.সমস্যার কথা স্বীকার করে নিয়েছেন বিক্ষোভের মুখে পড়া পোস্ট মাস্টার দেব দুলাল ধাঁড়া.তিনি জানিয়েছেন সমস্যা সমাধানের জন্যে তিনি তমলুকে প্রধান কার্যালয়ে ও ওভারসিয়ার তপন সামুইকে বহুবার বলেছেন.কিন্তু তার পরেও কেন সমস্যার সমাধান হচ্ছে জানিনা.ওভারসিয়ার তপন সামুই জানিয়েছেন তিন বছর আগেই সমস্যা সমাধানের ব্যাবস্থা করা হয়েছিলো.তার পরেও পোস্ট অফিসের তমলুকের প্রধান কার্যালয় থেকে কেন ঢিলেমি হচ্ছে বলতে পারবোনা.এই বিষয়ে পোস্ট অফিসের তমলুক মহকুমা কার্যালয়ে ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও কেউ ফোন ধরেনি

Please follow and like us:

Related posts