প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির আবেদন ….

প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির আবেদন …. সর্ব ভারতীয় কংগ্রেস কমিটির মাননীয় সভাপতি রাহুল গান্ধী মহাশয় পশ্চিম বঙ্গ প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পদের যে দায়িত্বভারে আমায় নিযুক্ত করেছেন,তার জন্য আমি তাঁকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করি। আমি আমার ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি মাননীয়া সোনিয়াজীর প্রতিও। ধন্যবাদ জানাই, সর্ব ভারতীয় কংগ্রেস কমিটি দ্বারা পশ্চিমবঙ্গের জন্য নিযুক্ত পর্যবেক্ষক,মাননীয় গৌরব গগৈ জীকেও।
“বাংলার ভাগ্যাকাশে আজ দুর্যোগের ঘনঘটা”। এই রাজনৈতিক ও সামাজিক সংকটকালে রাজ্য কংগ্রেসের সভাপতি পদে নিযুক্ত হয়ে আমি প্রথমেই দলের সর্বস্তরের কর্মীদের একজন হিসাবেই কাঁধে কাঁধ দিয়ে লড়াই করতে অঙ্গীকারবদ্ধ। যাঁরা এরাজ্যে কংগ্রেস ত্যাগ করে অন্য দলে চলে গ্যাছেন,যাঁরা ক্ষোভে- বিক্ষোভে দলের থেকে অভিমানে মুখ ঘুরিয়ে নিয়েছেন,যাঁরা যেখানে যে অবস্থায় কংগ্রেস থেকে দূরে সরে গ্যাছেন; তাঁদের প্রত্যেককেই আমি সসম্মানে দলে ফিরে আসার অনুরোধ ক’রছি।
যদি আমার প্রতি কারো কোনো ক্ষোভ- বিক্ষোভ থাকে, তাঁদের কাছেও করজোড়ে ক্ষমা প্রার্থনা করে বলছি,চলুন না -একসাথে জোটবদ্ধভাবে আবার লড়াই এ নামি আমরা। এ লড়াই হবে বাংলাকে সর্বনাশের অতলে নিয়ে যাওয়া তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই, এ লড়াই হবে সাম্প্রদায়িক ও ফাসিস্ত বিজেপি- আর.এস.এস -এর বিরুদ্ধে লড়াই।
আমি চিরকালই বিশ্বাস করি,কংগ্রেসের মূল সম্পদ কংগ্রেস -কর্মীরা। ৪১ বছর ক্ষমতার বৃত্তের বাইরে থেকেও এরাজ্যে আজও যে কংগ্রেস মাথা উঁচু করে পথ চলে, তার কৃতিত্ব বাংলার হাজার হাজার কংগ্রেস – কর্মীদের। সেই আমার পরম সাথী, আমার কংগ্রেস কর্মী ভাই- বোনেদের কাছে আমার আন্তরিক আবেদন–
চলুন, একসাথে এ রাজ্যে কংগ্রেস সংগঠনকে শক্তিশালী করে তুলি। সংগঠন কে বুথস্ততর থেকে গড়ে তোলার কোনো বিকল্প হতে পারে না।
এরাজ্যের সকল কংগ্রেস – কর্মী ও সর্বস্তরের নেতৃস্থানীয়দের কাছে আমার করজোড়ে আবেদন– আসুন, ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস – এর পতাকা তলে এ রাজ্যে আমরা সকল সুখ- দু:খ একটা পরিবারের মতো করে ভাগ করে নিই। ” আমি নই,আমরা ” এই হোক আমাদের মূল সঞ্জীবনী মন্ত্র

Please follow and like us:

Related posts