SBSTC শুধু মহানগর নয় দক্ষিনবঙ্গের সর্বত্রই পুজো দেখানর সাথে সাথে নিয়ে যাবে পর্যটন কেন্দ্র গুলিতেও

এবার পুজোয় শুধু মহানগর নয় দক্ষিনবঙ্গের সর্বত্রই পুজো দেখাবে দক্ষিনবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থা , নিয়ে যাবে পর্যটন কেন্দ্র গুলিতেও

পুজোর সময় মন্ডপে মন্ডপে কার না ঘুরে বেড়াতে ইচ্ছে করে ? কারই বা না ইচ্ছে হয় পুজোর সময় দূরে কোথাও প্রকৃতির কোলে কয়েক ঘন্টা ঢুঁ মারতে ?

এতকাল দক্ষিন বঙ্গের জেলা গুলির মানুষের সেই সখ সাধ পূরণের একমাত্র ভরসা ছিল ভাঁড়া করা গাড়ি । সাধ ও সাধ্যের মধ্যে বিস্তর ফারাক থাকায় অনেকেরই সেই সাধ পুরন হত না।তবে এবার সাধারন মানুষের সেই সাধ পূরণে এগিয়ে এসেছে দক্ষিনবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থা।

মহানগরের বুকে পুজোর মন্ডপে মন্ডপে ঘুরে বেড়ানোর সরকারি বাসের প্যাকেজ ট্যুর চালু রয়েছে বহুদিন আগে থেকেই । কিন্তু জেলাগুলির মানুষ এতদিন সে স্বাদ পাননি । এবছরই প্রথম দক্ষিনবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থা দক্ষিনবঙ্গের জেলা গুলিতে পুজোর সময় এই প্যাকেজ ট্যুর চালু করতে চলেছে । দক্ষিনবঙ্গের আসানসোল , দুর্গাপুর , বর্ধমান ছাড়াও বাঁকুড়া , পুরুলিয়া ও আরামবাগের মতো ডিপোগুলি থেকে এই প্যাকেজ ট্যুরের বাস চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকারি ওই পরিবহন সংস্থা । পুজো স্পেশাল সেই বাস বিভিন্ন শহর ঘুরে ঘুরে যাত্রীদের পুজো দেখাবে । সময় মতো মিলবে জল , টিফিন ও খাবারও । এর জন্য নির্দিষ্ট অঙ্কের টাকা গুনতে হবে যাত্রীকে । করতে হবে অগ্রিম বুকিং ও । ষষ্ঠী থেকে এই নতুন সার্ভিস চালু করছে পরিবহন সংস্থাটি । দশমীর দিন শহরের মানুষকে বিসর্জন দেখানোর জন্য সংস্থার বিশেষ বাসে থাকছে বিসর্জন প্যাকেজ । এছাড়াও পুজোর ছুটিতে দু একদিন মন চাইলে সরকারি বাসের বিশেষ প্যাকেজ নিয়ে আপনি ঘুরেও আসতে পারেন দীঘা , মুকুটমনিপুর , শুশুনিয়া বা অযোধ্যা পাহাড়ে । আর এসব কিছুর জন্য আপনার ভাঁড়া পড়বে জনপ্রতি তিনশো থেকে সাড়ে চারশো টাকা । অগ্রিম বুকিং করতে হলে আপনাকে যেতে হবে নিকটবর্তী দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার ডিপোতে ।
সরকারি পরিবহন সংস্থার এই উদ্যোগ নিশ্চিত ভাবেই দক্ষিনবঙ্গের সাধারন মানুষের সখ সাধ পূরন করবে বলে আশাবাদী সকলেই ।

Please follow and like us:

Related posts