আজ কাঁথিতে বিজেপির পাল্টা সভা তৃণমূলের

আজ পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথিতে বিজেপির পাল্টা জনসভা করতে চলেছে তৃণমূল।গত মঙ্গলবার কাঁথির পদ্মপুকুরিয়ায় রেলস্টেশন সংলগ্ন একটি মাঠে জনসভা করেছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।আজ তারই পাল্টা জনসভা করতে চলেছে তৃণমূল কর্তৃপক্ষ। জানা গেছে আজকের তৃণমূলের এই পাল্টা জনসভায় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পরিবহন ও পরিবেশমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী।এছাড়াও উপস্থিত থাকবেন স্থানীয় তৃণমূল নেতাকর্মীরা।

উল্লেখ্য,গত ২৯জানুয়ারি অর্থাৎ মঙ্গলবার কাঁথিতে বিজেপির গণতন্ত্র বাঁচাও বিষয়ক এক জনসভায় উপস্থিত হয়েছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।এছাড়াও এদিন উপস্থিত হয়েছিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ,রাহুল সিনহা,কৈলাস বিজয়বর্গীয়,লকেট চ্যাটার্জি,জয় ব্যানার্জি,সায়ন্তন বসু সহ বিজেপির এক ঝাঁক নেতৃত্বরা।আর আজ এরই পল্টা জনসভা করতে চলেছে তৃণমূল।আজকের এই জনসভায় মূলত উত্তর ও দক্ষিণ কাঁথি বিধানসভা কেন্দ্রের অধীন তৃণমূল সমর্থকদের উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।তৃণমূলের এই জনসভায় প্রায় এক লক্ষেরও বেশি সমর্থক উপস্থিত হবেন বলে আশাবাদী পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তৃণমূলের অন্যতম সাধারণ সম্পাদক কণিষ্ক পন্ডা।তিনি আরও জানান,“আমাদের জনসভার দিন সিপিএমেরও ব্রিগেডে জনসভা রয়েছে।তাই আমাদের কর্মী সমর্থকদের যেন কোনো অসুবিধা না হয় সে ব‍্যাপারেও আমরা পর্যাপ্ত ব‍্যবস্হা রেখেছি।”
মঙ্গলবারের বিজেপির জনসভায় জমি সংক্রান্ত এক সমস্যা ব‍্যাপকহারে মাথাছাড়া দিয়ে উঠেছিল।বিজেপির সভা করার নির্বাচিত স্হানের বেশকয়েকজন মালিক কর্তৃপক্ষ এই সভা করার ক্ষেত্রে বাধা দেন।শেষ পর্যন্ত অবশ‍্য সমস্ত সমস্যাকে কাটিয়ে জনসভা করতে সক্ষম হয়েছিল বিজেপিরা‌।তবে আজকের তৃণমূলের এই জনসভায় স্বেচ্ছায় জমি দিতে রাজি হয়েছেন মালিকরা বলে জানান জেলা তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক কণিষ্ক পন্ডা।তার দাবি,“বিজেপির জনসভায় বিজেপি নিজেই জমির ক্ষেত্রে সমস্যা সৃষ্টি করেছিল।এব‍্যাপারে মালিক কর্তৃপক্ষের কোনো দোষ নেই।”তবে এব‍্যাপারে তৃণমূলের উস্কানিকেই দায়ি করছেন বিজেপিনেতারা।গত মঙ্গলবার বিজেপির সভায় প্রায় তিন লক্ষ সমর্থক অংশগ্রহণ করেছিলেন।তবে আজকের তৃণমূলের সভায় কতজন মানুষ অংশগ্রহণ করবেন সেটাই এখন আজকের দেখার বিষয়।এবিষয়ে বিজেপির জেলা সভাপতি তপন মাইত বলেন,“আমাদের জনসভায় মানুষ স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করে মাঠ ভরিয়ে ছিলেন।তবে তৃণমূলের সভায় মাঠতো দূরের কথা রাস্তাও ভরবে না।যতটুকু মানুষ আসবেন সেটাও হুমকি দেখিয়ে জোর করে।”সবমিলিয়ে এখন পূর্ব মেদিনীপুর জেলার রাজনৈতিক টানাপোড়েন তুঙ্গে।আর এমন পরিস্থিতিতে বিজেপি-তৃণমূল দুই দলকে হাঠানোর দাবি জানিয়েছেন পূর্ব মেদিনীপুর জেলা সিপিএমের সম্পাদক নিরঞ্জন সিহি।তিনি জানান,“বিজেপি ও তৃণমূল একই পথে চলছে।তাই দেশ থেকে যেমন বিজেপিকে হঠাতে হবে,তেমনই রাজ‍্য থেকে তৃণমূলকছ সরাতে হবে।”
সব মিলিয়ে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার রাজনৈতিক উত্তাপ এখন তুঙ্গে।আর এই উত্তাপের মাঝে আজকের তৃণমূলের সভায় শুভেন্দু অধিকারী কি বার্তা দেন সেদিকে মুখিয়ে তৃণমূল সমর্থকরা।

-রিপোর্ট – তুহিন শুভ্র আগুয়ান

Please follow and like us:

Related posts